United Nations Welcome to the United Nations. It's your world.

জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে বর্ণিল নববর্ষ উদযাপন

Friday, April 22, 2016 - 10:00
নিউইয়র্ক, ১৪ এপ্রিল ২০১৬ :
 
বাঙালির প্রাণের উৎসব নববর্ষ আজ জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে উদযাপিত হয়। এ উপলক্ষ্যে মিশনকে অপূর্ব বাঙালি সাজে সাজানো হয়। দেশের ঢাক-ঢোল-একতারা, তালপাতার পাখা, নকশী কাঁথা, আলপনা, নানা-বর্ণের ব্যানার-ফ্যাস্টুন-বেলুন দিয়ে বর্ণিল করে তোলা হয় মিশনের বঙ্গবন্ধু অডিটরিয়ামকে।
 
নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষ্যে বিকেলে এক অভ্যর্থনার আয়োজন করা হয়। স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন বিদেশী অতিথিদের স্বাগত জানান। বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরাও বর্ণিল পোশাক পড়ে অনুষ্ঠানে আসেন। বাঙালির নববর্ষের সাথে একাত্ম হন। বাঙালি সংস্কৃতিতে এক নতুন মাত্রা যুক্ত করেন। প্রবাসী বাঙালিরাও রং-বেরংয়ের দেশীয় পোশাক পড়ে যোগ দেন উৎসবে। বিচিত্র রং এর সমাহারে ভিন্ন আমেজ এনে দেয় পুরো আয়োজনে। সৌন্দর্য্যরে চ্ছটায় এক অনাবিল শান্তির আবহ তৈরি হয়।
 
বহুমাত্রিক পরিবেশে অনুষ্ঠান সূচিত হয় জামদানি শাড়ী ও পায়জামা পাঞ্জাবী পরিহিত পঞ্চাশ জন বিদেশী নারী পুরুষের সমন্বয়ে গঠিত শ্রীচিন্ময় গ্রুপের গাওয়া ”এসো হে বৈশাখ” সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে। নিউজার্সির সৃষ্টি একাডেমীর শিল্পীরা বিভিন্ন ঋতুকে স্বাগত জানিয়ে সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করে। লালনগীতি, নজরুলগীতি, ভাওয়াইয়া সব ধরনের সঙ্গীত দর্শকদের মুগ্ধ করে।
 
স্থায়ী মিশনের এবারের নববর্ষ উদযাপনের প্রতিপাদ্য ছিল মাল্টি এথনিক, মাল্টি কালচারাল, মাল্টি রিলিজিয়াস বাংলাদেশ। এর মাধ্যমে অসাম্প্রদায়িক বাঙালি জাতির গৌরবময় ইতিহাস ও ঐতিহ্য তুলে ধরা হয়। এর অংশ হিসেবে চাকমা ও মারমা শিল্পীরা সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন।
 
বিদেশী অতিথিদেরকে মিশনের কর্মকর্তা কর্মচারীদের ঘরে তৈরি পিঠা-পুলি-পায়েস, ভাত-মাছ তরকারী দিয়ে আপ্যায়িত করা হয়।
অনুষ্ঠানে নিউইয়র্ক সফররত স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক উপস্থিত ছিলেন। 
 
এ উদযাপন অনুষ্ঠানের শেষ ভাগে স্থায়ী প্রতিনিধি বলেন, এই অসাম্প্রদায়িক ও সার্বজনীন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতির গৌরবময় ঐতিহ্য তুলে ধরা হয়েছে।
 
স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের ভাষা ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য আমাদের গর্ব। এই গর্ব অক্ষুণœ রেখে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে ১৯৭১ সালে মাত্র নয় মাসে ৩০ লাখ বাঙালির প্রাণের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। বাঙালি জাতির এ আনন্দের দিনে তিনি সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান।